1. dev@desher.news : Admin : desher news
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০১:২৯ পূর্বাহ্ন

মুক্তিযুদ্ধে বাংলার ২ কৃতি সন্তান

মোঃ সাইমুন আলম ইপ্তি
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১

১৯৭১ এ ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী ও ডাঃ এম এ মবিন ইংল্যান্ডে এফআরসিএস পড়ছিলেন। মাত্র ১ সপ্তাহ পরেই তাদের এফআরসিএস পরীক্ষা। টানা চার বছর রাতদিন এক করে পড়েছেন তাঁরা।
.
ঠিক সে সময়েই শুরু হলো মুক্তিযুদ্ধ। তাঁদের দুজনে ভাবলেন দেশ জ্বলেপুড়ে সাফ হয়ে যাবে, আর তারা বিলেতে বসে বসে পরীক্ষা দিবেন। এ হতে পারেনা। দুজনেই এতোদিনের পরিশ্রম, খাটুনি জলাঞ্জলি দিয়ে লেন সবার আগে দেশ। তারপর পরীক্ষার পড়াশোনা বাদ দিয়ে প্রথমেই পাকিস্তানি নাগরিকত্ব ত্যাগ করলেন। এরপর ভারতীয় ভ্রমন ভিসা যোগাড় করে দিল্লিগামী প্লেনে চড়ে বসলেন।
.
উদ্দেশ্য দিল্লি হয়ে ওখান থেকে কলকাতা হয়ে আগরতলা যাবেন। সেই বিমান ছিলো সিরিয়ান এয়ারলাইন্স-এর। দামেস্কে পাঁচ ঘণ্টা প্লেন দেরী করলো। সব যাত্রী নেমেছে। কিন্তু তাঁরা নামেননি, বুঝেছিলেন নামলেই গ্রেফতার হবেন। ঠিকই তাই। বাইডে তখব পাকিস্তানি কর্ণেল অপেক্ষা করছে তাঁদের গ্রেফতার করছে। কারন তারা পলাতক পাকিস্তানি নাগরিক। এদিকে বিমান আন্তর্জাতিক জোন বলে তাদের গ্রেফতার করতে পারছেন।


.
সিরিয়ান এয়ারপোর্ট কর্মকর্তা ওদের দুইজনকে জানিয়েছিল- আপনাদের জন্যই প্লেন পাঁচ ঘণ্টা দেরী হলো। শেষমেশ তারা দিল্লি পর্যন্ত পৌঁছাতে পারলেন।
.
ভারতের আগরতলার মেলাঘরে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে গেরিলা প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন তাঁরা। দুই নম্বর সেক্টরের কমান্ডার মেজর খালেদ মোশাররফ ও ভারতের জিবি হাসপাতালের প্রধান সার্জন ডা. রথিন দত্তের সহযোগিতায় ক্যাপ্টেন আখতার আহমেদের উদ্যোগে আগরতলার বিশ্রামগঞ্জের মেলাঘরে হাবুল ব্যানার্জির আনারস বাগানে গড়ে তোলা হয়েছিলো বাংলাদেশ ফিল্ড হাসপাতাল নামে ৪৮০ শয্যাবিশিষ্ট প্রথম ফিল্ড হাসপাতাল। হাসপাতালটির কমান্ডিং অফিসার ছিলেন ডাঃ সিতারা বেগম।(বীরপ্রতীক)
.
তখন প্রশিক্ষিত নার্স না থাকায় নারী স্বেচ্ছাসেবীদের প্রাথমিক চিকিৎসার প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি
Theme Developed BY : Sky Host BD